অবশেষে প্রধান শিক্ষিকা অপসারণ। বর্ধমানের মেমারির এই স্কুলে এখন খুশির হাওয়া। ক্লিক করে দেখুন

নিউজ ডেস্কঃ   প্রধান শিক্ষিকার ভয়ে তঠস্থ স্কুলের শিক্ষিকা থেকে ছাত্রীরা। দিনের পর দিন সকলের প্রতি দুরব্যবহার করেন বলে অভিযোগ। এদিন তার ব্যবহারের চরম সীমা অতিক্রম করায় সকল স্কুল কর্ত্তৃপক্ষ ও ছাত্রীরা প্রতিবাদ গড়ে তোলে। শুরু হয় অবস্থান বিক্ষোভ। প্রধান শিক্ষিকার অবসারনের দাবিতে মাইক নিয়ে প্রচার করা হয়। যার জেরে স্কুলের পঠনপাঠন শিকেয় উঠেছে। ঘটনাটি ঘটেছে বর্ধমানের মেমারি রসিকলাল স্মৃতি বালিকা বিদ্যালয়ে।
ঘটনার সূত্রপাত মঙ্গলবার। ছাত্রীদের অভিযোগ, সরস্বতী পুজোয় খওয়ানোর জন্য ছাত্রীদের কাছ থেকে চাঁদা নিলেও তাদের খাওয়ানো হয়নি। তাই তারা টাকা ফেরত এর দাবি জানিয়ে প্রধান শিক্ষিকার কাছে যায়। তাছাড়া বেশ কয়েকদিন ধরে বন্ধ রয়েছে মিড ডে মিল। কবে মিড ডে মিল চালু হবে তাও জানতে চায় ছাত্রীরা। এতেই ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠেন প্রধান শিক্ষিকা। আরও অভিযোগ, তাদেরকে অশ্রাব্য গালিগালাজ করেন এবং ছাত্রীদের মধ্যে কয়েকজনকে মারধোর করে বলে অভিযোগ। ছাত্রীদের জখম অবস্থায় ভর্তি করা হয় মেমারি হাসপাতালে। এদের মধ্যে একজনকে বর্ধমান হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে শুধু তাই নয়। এই ঘটনায় পুলিশের কাছে অভিযোগ দায়ের করে ছাত্রীরা। পাল্টা প্রধান শিক্ষিকাও পুলিশের কাছে তাকে মারধোর করে বলে অভিযোগ জানান। তার আরও অভিযোগ স্কুলে ভাঙচুর চালানো হয়। এই ঘটনার প্রতিবাদে আজ স্কুলের সামনে অবস্থান বিক্ষোভ শুরু হয়। সামিল হয় স্কুলের ছাত্রী, অভিভাবক ও ওই স্কুলেরই সহ শিক্ষিকারা। প্রধান শিক্ষিকার অবসারনের দাবিতে তারা সোচ্চার হয়।  অবশেষে  সদর মহকুমা শাসকের হস্তক্ষেপে সাময়িক বরখাস্ত করা হল প্রধান শিক্ষিকাকে। আপাতত স্কুলেরই এক শিক্ষিকাকে দায়িত্ব দেওয়া হবে স্কুল চালনার। মিড ডে মিল ও কন্যাশ্রী সংক্রান্ত বিষয় পরিচালন সমিতির সাহায্যে  মহকুমা শাসক ও পৌরসভা দেখবে। বৃহস্পতিবার থেকেই চালু হচ্ছে মিড ডে মিল।

***প্রতি মুহূর্তে ‘হাইলাইস বেঙ্গল’ এর নিউজ আপডেট পেতে আমাদের ফেসবুক পেজ Like  করুন।