এবার বর্ধমানের মেমারি ষ্টেশনে এক শিল্পীর অবাক প্রতিভার সন্ধান। ক্লিক করে দেখুন ভিডিও

শিল্পীর ভিডিও-

স্টেশনেই বেঁচে থাকার লড়াই, ষ্টেশনেই স্বপ্ন পূরণের স্বপ্ন দেখা। এক অসাধারণ পোর্ট্রেট শিল্পী জীবনে সুযোগ না পেয়ে স্টেশনেই পড়ে থেকে শেষ হয়ে যাচ্ছে।

শিবহরি দে। হাওড়া বর্ধমান মেন শাখার মেমারি স্টেশন এখন তাঁর ঠিকানা। মাথায় ফেটি, ছেড়া জামা পড়ে বসে থাকে স্টেশনে। হাতে আট পেপার আর পেন্সিল। একজন প্রতিভাবান পোট্টেট শিল্পী। তাঁর শিল্প কর্ম দেখলে অবাক হবেন। ষ্টেশনেই তাঁর দিনযাপন। হাতে পেন্সিল আর আর্ট পেপার নিয়ে বসে থাকেন। মাত্র ৫০ টাকার বিনিময়ে পোট্টেট আর্টের কাজ করে দেন। কেউ সামনে বসলে হুবুহু তার মুখটা এঁকে দেন। এই ছবি আকাঁর অর্থে হয়তো কোনদিন খাবার জোটে আবার কোন দিন জোটেনা।

শিবহরি দে হাইলাইটস বেঙ্গলকে জানালেন, অনান্য শিল্পীর মতো তাঁরও স্বপ্ন ছিল আর্টিষ্ট হিসাবে প্রতিষ্ঠা পাওয়ার। বড় শিল্পী হওয়ার। স্বপ্ন ছিল আর্ট স্কুল করার। ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে আর্টিস্টের কাজ করারও ইচ্ছা ছিল। তবে কোনটাই হয়নি।

বন্ধু তন্ময় ও তার আকাঁর শিক্ষক বিজয় চন্দ্র তার দিকে কিছুটা সাহায্য হাত বাড়িয়ে দিয়েছে। তারাও চান কোন সহৃদয় বা প্রতিষ্ঠান তার পাশে দাঁড়াক। প্রয়োজন  তার চিকিৎসা, আশ্রয় ও আর্থিক সাহায্য।