ধুন্ধুমার মেমারির গার্লস স্কুল। শিক্ষিকার মারে জখম বেশ কয়েকজন ছাত্রী। পাল্টা প্রতিবাদ। ক্লিক করে দেখুন

নিউজ ডেস্কঃ   মার ও পাল্টা মারের ঘটনায় ব্যাপক উত্তেজনা ছড়াল বর্ধমানের মেমারি রসিকলাল স্মৃতি বালিকা বিদ্যালয়ে। জখম ৭ ছাত্রী। পরিস্থতি সামলাতে স্কুলে মেমারি থানার পুলিশ। এই ঘটনায় এদিন বিদ্যালয়ের পঠন পাঠন শিকেয় উঠে।
বিদ্যালয়ের এক ষষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রীর অভিযোগ, দ্বিতীয় ঘণ্টার পর পরবর্তী ক্লাস সম্বন্ধে জানতে চাইলে প্রধান শিক্ষিকা তাকে তার প্রয়াত মা সহ পরিবার নিয়ে অশ্রাব্য গালিগালাজ করেন। এই ঘটনায় হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়ে ওই ছাত্রী। অন্য শিক্ষিকারা ওই ছাত্রীর বাড়িতে খবর দিলে স্কুলে তার পরিবারের লোকেরা পৌছায়। অসুস্থ ছাত্রীকে ভর্তি করা হয় মেমারি হাসপাতালে। এর পরই স্কুলে উত্তেজনা ছড়ায়। অন্য ছাত্রীরা প্রধান শিক্ষিকাকে ঘিরে বিক্ষোভ দেখাতে থাকে। অভিযোগ, সেই সময় প্রধান শিক্ষিকা ছাত্রীদের চেয়ার, ডাস্টার ছুড়ে মারে। যার ফলে আরও বেশ কয়েকজন ছাত্রী জখম হয়। এদের মধ্যে একজনকে বর্ধমান হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে, বাকি ছাত্রীদের চিকিৎসা চলছে মেমারি হাসপাতালে।
প্রধান শিক্ষিকা নীলিমা ভট্টাচার্য্য ছাত্রীদের মারধরের অভিযোগ অস্বীকার করেন। তার পাল্টা অভিযোগ, বিদ্যালয়ে চরম ভাবে তিনি নিগৃহীত হয়েছেন। বাঁশ, গাছের ডাল দিয়ে তাকে মারধর করা হয়েছে, শাড়ি ছিঁড়ে দেওয়া হয়েছে। তাকে অশ্লীল গালিগালাজ করা হয়েছে বলে আভিযোগ। প্রথমে ছাত্রীরা মেমারি থানায় অভিযোগ করে। পরে প্রধান শিক্ষিকাও গোটা ঘটনার লিখিত অভিযোগ করেন।
অন্যদিকে প্রধান শিক্ষিকার অপসারণের দাবি তুলে পথে নেমেছে স্কুলের কিছু ছাত্রী ও অভিভাবকরা। বুধবার থেকে অনির্দিষ্টকালের জন্য অবস্থান বিক্ষোভের ডাক দিয়েছে তারা। শহরে তারা মাইক নিয়ে প্রচারও করেন।

***প্রতি মুহূর্তে ‘হাইলাইস বেঙ্গল’ এর নিউজ আপডেট পেতে আমাদের ফেসবুক পেজ Like  করুন।