পাঁচ বছরের সম্পর্কের পর বিয়ে। বিয়ের আগের দিন হবু স্বামীকে খুনের চেষ্টা। সমকামিতা না সম্পর্কের টানাপোড়েন? ক্লিক করে দেখুন

রাজকুমার ঘোষঃ     ফোনে ডেকে এনে বান্ধবীকে সঙ্গে নিয়ে হবু স্বামীকে খুনের চেষ্টায় চাঞ্চল্য বর্ধমানের কালনার। গলায় ধারালো অস্ত্রের কোপ। গুরুতর জখম অবস্থায় চিকিৎসাধীন হবু স্বামী। গ্রেপ্তার দুই মহিলা।

পাঁচ বছর ধরে তাদের প্রেমের সম্পর্কের এমন পরিণতি হবে স্বপ্নেও ভাবেনি কালনার সাতপুর গ্রামের চিরঞ্জিব পাল।মঙ্গলবার মন্দিরে গিয়ে প্রেমিকা দীপা পণ্ডিতের সঙ্গে বিয়ে হওয়ার কথা ছিল চিরঞ্জিবের।এর।দীপার বাড়ি কালনারই মধুবন পাড়ায়। কিন্তু তার আগেই ঘটে গেল বিপত্তি।  ইতিমধ্যে বিয়ের রেজিস্ট্রিও হয়েছে। বিয়ের আগের দিন রাত ১০.০০ নাগাদ দীপা চিরঞ্জীবকে ডেকে পাঠায় তার বাড়ির কাছে। সেখানে তারা অন্তরঙ্গভাবে মেলামেশা করে।অভিযোগ, তারপর দীপা খেলার ছলে চিরঞ্জীবের চোখ বেঁধে দেয় দীপা। দীপার বান্ধবী নাসিমা খাতুন সেখানেই ছিল। এরপর সে এসে চিরঞ্জীবের গলায় কোপ মেরে দুজনেই পালিয়ে যায়। গুরুতর জখম অবস্থায় চিরঞ্জীব নিজেই বাইক চালিয়ে কালনা থানায় পৌঁছে যায়। পুলিশ তাকে কালনা মহকুমা হাসপাতালে ভর্তি করে।সেখানেই তার চিকিৎসা চলছে।পুলিশের কাছে চিরঞ্জীব জানিয়েছে, নাসিমা দেহ ব্যবসায় যুক্ত। দীপাকে সে ওই কাজে আনতে চেয়েছিল। বাধা দেওয়ায় তাকে  খুনের চেষ্টা করা হয়। তবে সেখানে দীপার মদত ছিল।অন্যদিকে এই ঘটনার পিছনে দীপা ও নাসিমার সমকামী সম্পর্কের তথ্য উঠে এসেছে। যার জেরে চিরঞ্জিবকে খুনের ছক কষেছিল তারা বলে মনে করা হচ্ছে। তবে এর কারণ জানতে পুলিশ দীপা ও নাসিমাকে গ্রেপ্তার করে জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করেছে।

**প্রতি মুহূর্তে ‘হাইলাইস বেঙ্গল’ এর নিউজ আপডেট পেতে আমাদের ফেসবুক পেজ Like  করুন।