বন্ধুর মৃত্যু হয়েছে দূর্ঘটনায়। প্লাকেট হাতে রাস্তায় বন্ধুরা। বড়শুল এখনো শোকস্তব্ধ।

অর্ঘ্য ব্যানার্জি, শক্তিগড়: ঘটনা ৩৬ ঘন্টা কেটে গেল স্কুলছাত্রকে যে ট্রাকটি ধাক্কা মারে তার চালককে গ্রেপ্তারের দাবিতে হাতে প্লাকেট, পোস্টার নিয়ে রাস্তা অবরোধ করল স্কুল পড়ুয়া এলাকার বাসিন্দারা।

রবিবার সন্ধ্যায় বাবা অরবিন্দ মন্ডলের সঙ্গে মিলগেট বাজারে সাইকেলে চেপে পুজোর ফল কিনতে যায় ।বাজার করে ফেরার সময় বড়শুল ধর্মতলায় শক্তিগড় থেকে বড়শুল গামী লরি সাইকেলে থাকা দুই আরোহী ধাক্কা মেরে পালিয়ে যায়। গুরুতর আহত ৯ বছরের বাপন মন্ডল ও পিতা অরবিন্দ মন্ডল কে হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক বাপন মন্ডল কে মৃত ঘোষনা করে । সে হরিপল্লী শিশুশিক্ষা কেন্দ্রের চতুর্থ শ্রেনির ছাত্র  পূর্ব বর্ধমানের সদর ২ ব্লকের বড়শুল তেঁতুল তলায় বাসিন্দা।এলাকার বাসিন্দারা গুরুতর আহত গুরুতর আহত অরবিন্দ মন্ডলে চিকিৎসা চলছে।

ঘাতক লরিটি ধাক্কা মেরে দামোদর নদের দিকে চলে যায় । এলাকার বাসিন্দরা ঘাতক লরিটির আটক করা দাবি জানায় ও ক্ষোভে ফেটে পরে ।পুলিশ ঘাতক লরিটি আটক করলেও লরির চালক কে এখনও গ্রেফতার করতে পারেনি।তিন দিন হয়ে গেলেও লরির চালক কে গ্রেফতার, স্কুল টাইমে সকাল ১০টা থেকে ১১টা ও ছুটির সময় ৩টে থেকে ৪টে পর্যন্ত বালির লরি চলাচল বন্ধ রাখতে হবে, রাস্তায় হাম্প, গাড়ির গতি নিয়ন্ত্রন,অবৈধ বালি খাদ বন্ধ, অনিতা দাস বলেন, তিনমাস বন্ধ থাকার পর অবৈদ্ধ বালি বিক্রি হচ্ছে কেন।  শক্তিগড় পুলিশ চালকে ধরার আ়শ্বাস দিলে অবরোধ তুলে নেয় তারা।