পাত্রপক্ষ বা পাত্রীপক্ষ নয়, তত্ত্ব হাতে ছাত্রছাত্রীরা। বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয়ের অভিনব রীতি। দেখুন সেই ভিডিও

নিউজ ডেস্কঃ  বসন্ত এসে গেছে। হ্যাঁ!  বসন্তের ছোঁয়া বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয় চত্বরে।  সরস্বতী পুজোর পরের দিন তত্ত্বের ডালি আদান প্রদানের মাধ্যমে বন্ধুত্বের নিবিড় বন্ধন গড়ে ওঠে।  এদিন বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয়ে এক অন্য প্রেমের দিন। বিশ্ববিদ্যালয়ের আবাসিক ছাত্রছাত্রীরা এই দিনটির জন্যই অপেক্ষা করে থাকে সারা বছর। অনেকে আবার নিজের মনের মানুষকে একটু কাছে পাওয়ার সুযোগ হাতছাড়া করে না।

পুরনো ঐতিহ্য মেনে সরস্বতী পুজোর পরের দিন বিশ্ববিদ্যালয় আবাসিক  ছাত্রারা  উপহারের ডালি সাজিয়ে বাদ্যযন্ত্র সহকারে ছাত্রী আবাসনে হাজির হয়।আবার ছাত্রীরাও তত্ত্বের ডালি  নিয়ে পৌঁছে যায় ছাত্রাবাসগুলিতে। বিয়ের তত্ত্ব প্রদানের অনুষ্ঠানের মতোই উপহার ডালিতে থাকে নানান স্বাদের মিষ্টি, সন্দেশ, কসমেটিক্স,চকলেট, সাজ পোশাক অনেক কিছু।এক আবাসন থেকে অন্য আবাসনে  পৌঁছানোর পরই শুরু হয়ে যায়  অথিতি আপ্যায়ন।

এই প্রথা কবে, কেন চালু হয়েছিল তা স্পষ্ট করে কেউ বলতে পারেন না। অনেকেই মনে করেন,  বছরের অন্য সময় ছাত্রী আবাসনে ছাত্রদের প্রবেশের খুব একটা সুযোগ থাকে না। সরস্বতী পুজোর সময় এক আবাসন থেকে অন্য আবসনে যাওয়ার সেই রুদ্ধদ্বার খোলা হয়। পুজোর পরের দিন এই তত্ত্ব আদান প্রদানের মাধ্যমে মনের মানুষের একটু কাছাকাছি আসার সুযোগ হয়। তবে ছাত্রছাত্রীদের মতে, এই অনুষ্ঠানের মাধ্যমে  বন্ধুত্বের সুসম্পর্ক আরও নিবিড়  হয়। তবে  যে যাই বলুক, এই দিনতো প্রেমেরই দিন। তাই  এদিন প্রেম নিবেদনের সুবর্ণ সুযোগ অনেকেই হাতছাড়া করতে চায় না।  তাই বলা যেতেই পারে, ফুল ফুটুক আর না ফুটুক আজ বসন্ত।

প্রতি মুহূর্তে ‘হাইলাইস বেঙ্গল’ এর নিউজ আপডেট পেতে আমাদের ফেসবুক পেজ Like  করুন।

আপনার এলাকার কোনও খবর থাকলে যোগাযোগ করুন এই নম্বরে-  7908002248,  9933106904

আপনি কি কবিতা বা গল্প লেখেন? পাঠান আমাদের। ‘হাইলাইস বেঙ্গল’’ এর বিশেষ বিভাগ ‘আপনার লেখা’ তে প্রকাশিত হবে। আপনার লেখা পৌঁছে যাবে বিশ্বের দরবারে। লেখা পাঠান এই ই-মেলে- highlightsbengal.news@gmail.com   (whatsapp – 9933106904)

IMG-20170202-WA0006
ছবিঃ সুমিত ভগত

 

IMG-20170202-WA0008
ছবিঃ সুমিত ভগত

দেখুন সেই ভিডিও-