বিয়ে করতে গিয়ে শ্রীঘরে বর। এই ঘটনা শুনলে চক্ষু চড়কগাছ হবে। ক্লিক করে দেখুন ভিডিও

প্রসূন সামন্ত, বর্ধমানঃ   বিয়ে করার সাধ আর পূর্ণ হল না। বিয়ে করার আগেই বরকে যেতে হল জেলে। বিয়ের গাড়িতে ওঠার সময় হাতেনাতে পাকড়াও বর বাবাজি। আপাতত ঠাই শ্রীঘরে। বর্ধমানের বাজেপ্রতাপপুরের ঘটনায় চাঞ্চল্য।

সব ঠিকঠাকই ছিল। পাত্রী দেখা, আশীর্বাদ, দেনাপাওনা সবই হয়েছে গোপনে। এমনকি বিয়ের আসর পর্যন্ত তৈরি। কিন্তু প্রেমিকার উদ্যোগেই হল পর্দা ফাঁস। বিয়ে করতে যাবে ঠিক সেই সময় হাজির বর্ধমান মহিলা থানার পুলিশ। তারপরের কাহিনী শুনলে চক্ষু চড়কগাছ হবে।

বর্ধমানের বাজেপ্রতাপপুরের বাসিন্দা ডাঃ সুকান্ত পালের ছেলে সায়ন্তন পাল। পেশায় কেন্দ্রীয় সরকারের জিওলজিক্যাল সার্ভে অফ ইন্ডিয়ার কর্মী। পুনেতে কর্মরত। বাড়িতে দেখাশোনা করে বর্ধমানের কলিগ্রামে বিয়ের ঠিক হয়। শুক্রবার দুই বাড়িতেই জমজমাট আসর। পাত্র বাবাজি গাড়ি চেপে বিয়ে করতে যাবে ঠিক সেই সময় হটাৎই হাজির পুলিশ। পাত্রকে তুলে বর্ধমান থানায় নিয়ে আসে। এরপর গুণধর সায়ন্তনের আসল চেহারা সামনে আসে। অভিযোগ, সায়ন্তন পালের সঙ্গে দুবছর ধরে সম্পর্ক ছিল বর্ধমানের শাঁকারিপুকুরের এক যুবতির। তার অভিযোগ বিয়ে করার প্রতিশ্রুতি দিয়ে দীর্ঘদিন সহবাস করে সায়ন্তন। এরপর লুকিয়ে অন্য জায়গায় বিয়ে করছিল। পাত্রীপক্ষও খবর পেয়ে থানায় এসে হাজির হয় এবং পাত্রপক্ষের নামে থানায় অভিযোগ দায়ের করে। দুপক্ষের অভিযোগের ভিত্তিতে বর্ধমান মহিলা থানার পুলিশ সায়ন্তনকে গ্রেপ্তার করে আদালতে পেশ করে। আদালত তাকে জেল হেফাজতের নির্দেশ দেয়।

প্রতি মুহূর্তে ‘হাইলাইস বেঙ্গল’ এর নিউজ আপডেট পেতে আমাদের ফেসবুক পেজ Like  করুন।

marriage-fanal-2

 

দেখুন সেই ভিডিও-