হাসি মুখেই বিদায় নিলেন বিশিষ্ট সাংবাদিক ইন্দ্রনীল সরকার।

নিউজ ডেস্কঃ    এভাবে চলে যাবে কেউ স্বপ্নেও ভাবেনি। বিশেষ করে তার বন্ধু, সহকর্মী, আত্মীয়, শুভাকাঙ্ক্ষীরা।একমুখ সাদা দাড়ি, সদা হাস্যময় রোগা ছিপছিপে মানুষটা আর নেই এটাও কেউ বিশ্বাস করতে পারছে না।বিশ্বাস করবেই বা কি করে। কাজ পাগল এই মানুষটা সবার আজান্তেই বন্ধু, সহকর্মীদের হৃদয়ে কখন যে জায়গা করে নিয়েছে কেউ বুঝতে পারে নি।  তাই বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় খবর চাউর হতেই ফেসবুক আর হোয়াটস অ্যাপ গ্রুপে শুভাকাঙ্ক্ষীদের হাজারো প্রশ্ন ‘ইন্দ্র নেই!…’, ‘এটা কি সম্ভব?…’, ‘কি করে হল?…?’ ইত্যাদি ইত্যাদি।

সাংবাদিক ইন্দ্রনীল সরকার। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় বর্ধমানে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করলেন। মৃত্যুকালে বয়স হয়েছিল ৫৪ বছর। পরিবারে রইলেন বৃদ্ধা মা। টেলিগ্রাফ পত্রিকায় কর্মরত ছিলেন। এদিন সন্ধ্যায় সহকর্মী সাংবাদিক বন্ধুদের সাথে বর্ধমান কার্জন গেট এলাকায় গল্প করছিলেন। সেই সময় বুকে ব্যাথা অনুভাব করেন। তারা সঙ্গে সঙ্গে ডাক্তার ডেকে প্রাথমিক চিকিৎসা করিয়ে বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসকরা তাকে মৃত বলে ঘোষণা করে। এরপর বর্ধমান কার্জন গেট এলাকায় তার মরদেহ আনা হয়। সেখানে পুষ্পস্তবক দিয়ে শেষ শ্রদ্ধা জানান তার সাংবাদিক বন্ধু, শুভাকাঙ্ক্ষীরা। শ্রদ্ধা জানান বর্ধমান পুলিশ সুপার কুলান অগ্রবাল। উপস্থিত ছিলেন বহু মানুষজন। এরপর সেখান থেকে নিয়ে যাওয়া হয় বৈঁচিগ্রামে তার বাসভবনে।…

হাসতে হাসতে চলে গেলেন ইন্দ্র দা, সবাইকে কাঁদিয়ে।

প্রতি মুহূর্তে ‘হাইলাইস বেঙ্গল’ এর নিউজ আপডেট পেতে আমাদের ফেসবুক পেজ Like  করুন।