রাজ্যের আজব স্কুল।পড়ুয়া নেই অথচ শিক্ষক আছে। কারণ শুনলে অবাক হবেন। ক্লিক করে পড়ুন

নিউজ ডেস্কঃ  স্কুল আছে। কিন্তু ছাত্রী নেই। নেই বললে ভুল হবে। ছাত্রীর সংখ্যা মাত্র দশ। তারাও নিয়মিত আসে না। শুধু কি তাই? এখানে শিক্ষক শিক্ষিকার সংখ্যা মাত্র ৪ জন আর সঙ্গে রয়েছে ১ জন কর্মী। আসি যাই মাইনে পাই এর মতো অবস্থা। এখন সেটাও হয় না। বেশ কয়েক মাস হল স্কুল বন্ধ। বাড়িতে বসে বসেই পায় মাইনে। বর্ধমানের হাটগোবিন্দপুর জুনিয়ার গার্লস হাই স্কুল। এখন সেই স্কুলের হাল এরকমই।

শিক্ষার উন্নতিতে উদ্যোগী রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কিন্তু এই স্কুলের ছবি অন্য কথা বলছে। এলাকার পুরনো এই স্কুল। ২০১৩ সালে জুনিয়র হাই স্কুলের অনুমোদন পায়। গ্রামের ছাত্রছাত্রীরা এলাকা থেকে অনেকটাই দূরে অন্য স্কুলে পড়তে যায়। কিন্তু কেন? কারন এলাকাবাসীরা জানাচ্ছেন, তাদের মেয়েরা স্কুলের পরিবেশে ভয় পায়। চারিদিকে ধু ধু মাঠ। ফাঁকা মাঠের মাঝখানে স্কুল। বাথরুম অনেক দূরে। তাও আবার অনেকটা উঁচুতে। জনবসতিহীন এই এলাকার স্কুলে ছাত্রছাত্রীরা আতঙ্কে ভর্তি হয় না। স্থানীয় বিধায়কও স্বীকার করেছেন, পরিবেশের সমস্যার কথা। তবে যাতে পুনরায় স্কুলটি চালু করা যায় তার উদ্যোগ নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন।

প্রতি মুহূর্তে ‘হাইলাইস বেঙ্গল’ এর নিউজ আপডেট পেতে আমাদের ফেসবুক পেজ Like  করুন।

school-1