গাছ লাগিয়ে নিজের নামটাই বদলে গেছে এই শিক্ষকের। ক্লিক করে পড়ুন সেই কাহিনী।

সুদীপা সরকার, হাইলাইটস বেঙ্গলঃ      পেশায় স্কুল শিক্ষক অরূপ চৌধুরী। না। এটাই তার বড় পরিচয় নয়। তাকে সবাই চেনে  ‘গাছ মাস্টার’ নামে । কেন তার এমন নাম?  তিনি গাছকে ভালোবাসেন। জীবনের বেশিরভাগ সময় তিনি গাছের জন্য ব্যয় করেছেন। সবুজায়ন জীবনের লক্ষ্য, সবুজায়ন জীবনের ব্রত। শুধু অরণ্য সপ্তাহ নয়, কর্ম ব্যস্ত জীবনের অবসর সময়ে  তিনি ঘটাচ্ছেন সবুজ বিপ্লব।  নিজের উদ্যোগে ও নিজ ব্যয়ে প্রচুর গাছ বিতরণ করেছেন। নিজের হাতেও লাগিয়েছেন প্রায় হাজার খানেক গাছ।

স্কুল জীবন থেকেই গাছের প্রতি প্রেম ।  বিভিন্ন জায়গা থেকে গাছ সংগ্রহ করে সযত্নে লাগাতেন বাড়ির বাগানে। এরপর  ১৯৯৩ সালে  বর্ধমানের নাদন ঘাট রামপুরিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ে ইংরাজির শিক্ষক হিসাবে কর্মজীবন শুরু করলেন। এখন থেকে তার কাজটা আরও সহজ হল। বেতনের টাকায় গাছ কিনে বিতরণ করতে লাগলেন ছাত্র ছাত্রী ও সাধারণ মানুষকে। পরীক্ষার খাতা দেখার বাড়তি পারিশ্রমিকের টাকা দিয়েও গাছ কিনে বিতরণ করেন। স্কুলে ছাত্রদের নিয়ে তৈরি করলেন  ‘গ্রিন আর্থ মুভমেন্ট’ নামে একটি সংস্থা। এই সংস্থার কাজ হল বিভিন্ন জায়গায় বৃক্ষ রোপণ করা। এর পাশাপাশি বিভিন্ন জায়গায় সভা সেমিনারের আয়োজন করেন। ছাত্র ছাত্রী ও সাধারন মানুষকে বোঝান  সবুজায়নের প্রয়োজনীয়তা।   সবুজের বার্তাকে আরও ছড়িয়ে দিতে ফেসবুক পেজ করলেন।  নাম দিলেন  ‘ উই দা গ্রিন টিচার’ । করেছেন  “GACH (C/O গাছ মাষ্টার)” নামে হোয়াটস অ্যাপ গ্রুপ।

কোন অনুষ্ঠানে আমন্ত্রণ  পেলে উপহার হিসাবে গাছ দেন। শুধু কি তাই। স্কুলের বার্ষিক পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানাই।অন্যান্য পুরস্কারের সঙ্গে একটি করে গাছ দেওয়া শুরু করেন। সেই রীতি  এখন  জেলার অন্যান্য স্কুলেও ছড়িয়ে পড়েছে। এই কাজের পুরস্কার হিসাবে পেয়েছেন জাতীয় শিক্ষকের সম্মান। পেয়েছেন  শিক্ষারত্ন পুরস্কার পান। ‘মানুষ একবার গাছ হও তুমি’ নামে বইও লিখেছেন। বছর কয়েক আগে প্রধান শিক্ষক হিসাবে অন্য একটি স্কুলে বদলি হয়ে যাচ্ছিলেন। কিন্তু  ছাত্র ছাত্রীরা তাকে যেতে দেয়নি। তাদের অনুরোধে তিনি প্রধান শিক্ষকের পদ ফিরিয়ে দেন।  থেকে যান নিজের স্কুলেই। এর বাইরে সুযোগ পেলে সমাজে পিছিয়ে পড়া পড়ুয়াদের জন্য কাজ করেন।  আদিবাসী ও দরিদ্র ছাত্র ছাত্রীদের বিদ্যালয়মুখী করতে এবং স্কুলছুটদের শিক্ষার মুল স্রোতে ফিরিয়ে আনতে  তৈরি করেছেন  ‘ ড্রপ আউট প্রিভেনশন ক্লাব’।

*** ‘হাইলাইস বেঙ্গলএর নিউজ আপডেট পেতে আমাদের ফেসবুক পেজ Like  করুন।

আপনি কি কবিতা বা গল্প লেখেন? পাঠান আমাদের। ‘হাইলাইস বেঙ্গল’’ এর বিশেষ বিভাগ ‘আপনার লেখা’ তে প্রকাশিত হবে। আপনার লেখা পৌঁছে যাবে বিশ্বের দরবারে। লেখা পাঠান এই ই-মেলে- highlightsbengal.news@gmail.com

উদ্যোগপতি,  জীবন সংগ্রাম, কঠিন লড়াই, সাফল্য, বিশেষ কৃতিত্ব সংক্রান্ত কাহিনী এই বিভাগে প্রকাশ করা হবে। এই ধরনের গুণী মানুষদের কৃতিত্ব বিশ্বের  কাছে তুলে ধরতে চাই আমরা। আপনার নজরে এই খবর থাকলে জানান এই নম্বরে- ৭৯০৮০০২২৪৮

আপনার প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপনের সেরা মাধ্যম ‘হাইলাইস বেঙ্গল’ বিজ্ঞাপনের জন্য  ফোনে করুন- ৯৯৩৩১০৬৯০৪, ৭৯০৮০০২২৪৮.