সতীদাহ হতো এখানে। তাই বর্ধমানের এই কালী ‘সতী মা’ নামে পুজিত। ক্লিক করে দেখুন সেই কাহিনী

হাইলাইটস বেঙ্গল নিউজ ডেস্কঃ   কান পাতলে এখনও নাকি সতী নারীর কান্নার আওয়াজ শোনা যায় এখানে। এমনটাই বলেন স্থানীয় মানুষরা। গা ছমছম পরিবেশ। চারিদিকে অশ্বত্থ আর বটগাছ। বটগাছের ঝুরি থাবা বসিয়েছে প্রাচীন মন্দিরগুলিতে। তার মাঝখানে মা কালির পুজো। পুরোটাই যেন রোমাঞ্চকর ব্যাপার। বর্ধমানের তেজগঞ্জ নতুন কলোনির কালি পুজোর সময় এই পুজো দেখার জন্য হাজার হাজার মানুষের সমাগম হয়। প্রায় হাজার বছরেরও বেশি পুরনো এই পুজো। এই পুজো ঘিরে আছে বিশাল ইতিহাস। এককালে সতীদাহের পুণ্য স্থানের জন্য সতীর মাঠ ছিল বিখ্যাত। কথিত আছে, আগে এই স্থানে ছিল শ্মশান। তখন সতীদাহ প্রথা অনুযায়ী মৃত স্বামীর সঙ্গে তার স্ত্রীকেও সহমরণে যেতে হতো। ধুমধাম করে তখন সহমরণে যাওয়ার ব্যবস্থা করা হতো। দূরদূরান্ত থেকে মৃত স্বামীর সঙ্গে তার স্ত্রীকে এই স্থানে আনা হতো। সঙ্গে থাকতেন ব্রাহ্মণ। স্বর্গে পাঠানোর পয়সা দিয়ে ঢাক, ঢোল, কাঁসি মজুত রাখা হতো।  সতীদাহ প্রথা আজ আর নেই। কিন্তু বহু প্রাচীন এই পুজো এখনো জাঁকজমকের সাথেই হয়ে আসছে। বহু মানুষের সমাগম হয়। মেলা বসে। প্রায় তিন হাজার মানুষের ভোগ রান্না হয়।

প্রতি মুহূর্তে ‘হাইলাইস বেঙ্গল’ এর নিউজ আপডেট পেতে আমাদের ফেসবুক পেজ Like  করুন।

আপনার প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপনের সেরা মাধ্যমহাইলাইস বেঙ্গল বিজ্ঞাপনের জন্য  ফোন করুন৯৯৩৩১০৬৯০৪, ৭৯০৮০০২২৪৮

আপনি কি কবিতা বা গল্প লেখেন? পাঠান আমাদের।হাইলাইস বেঙ্গল এর বিশেষ বিভাগ আপনার লেখাতে প্রকাশিত হবে। আপনার লেখা পৌঁছে যাবে বিশ্বের দরবারে।

2