শ্বাশুড়িকে ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেপ্তার জামাই ও তার দুই বন্ধু ।

জামাই দুই বন্ধুকে সঙ্গে নিয়ে শ্বাশুড়িকে ধর্ষণের ঘটনায় চাঞ্চল্য আউসগ্রাম এলাকায়।

ঘটনায় গ্রেপ্তার জামাই সহ অভিযুক্ত আরো দুই যুবক।

আউসগ্রামের ভাতকুন্ডা গ্রামে একটি মেলা চলছিল। মধ্যবয়স্ক ওই ধর্ষিতা মহিলা জানিয়েছেন, মেলাতে দেখা হয় তার জামাই সজল বাউরীর সঙ্গে। রাত দশটা নাগাদ বাড়ি পৌঁছে দেওয়ার নাম করে তাকে বাইকে চাপায়। সঙ্গে জামাইয়ের আরো এক বন্ধু ওই বাইকে চাপে। সেখান থেকে কুনুর নদীর চরে জোর করে নিয়ে যায়। সেখানে জামাইয়ের আরো এক বন্ধু অপেক্ষা করছিল বলে তিনি অভিযোগ করেছেন। সেখানেই জোরকরে তিনজনে তাকে ধর্ষণ করে এমনটাই তার অভিযোগ।

রাতের অন্ধকারে কোনোক্রমে প্রাণ বাঁচাতে পালিয়ে আসেন ওই মহিলা। পুলিশকে অভিযোগ জানানোর পরই পুলিশ অভিযুক্ত তিন জনকে গ্রেফতার করে।

অভিযুক্তদের পুলিশ হেফাজতের আবেদন জানিয়ে বর্ধমান আদালতে পাঠানো হয়।

ঘটনায় যথেষ্ট চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে এলাকায়।