তিনটে বিয়ে। অবশেষে গ্রেপ্তার। বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয়ের এই কর্মীর কাণ্ড শুনলে অবাক হবেন। ক্লিক করে দেখুন

 নিউজ ডেস্কঃ  একটা নয়, দুটো নয়, তিনটে বিয়ে। তিনটে বিয়ে করে গ্রেপ্তার পেশায় বর্ধমান বিশ্ব বিদ্যালয়ের কর্মী ঋতময় ভট্টাচার্য।  তৃতীয় স্ত্রীর অভিযোগে গ্রেপ্তার করা হয়। খবরের কাগজের পাত্রপাত্রীর বিজ্ঞাপন দেখে যোগাযোগ। তারপর ফেসবুকে গভীর  সম্পর্ক। অবশেষে বিয়ে। এর আগে দুটো বিয়ে করলেও তৃতীয় স্ত্রী অত্যাচারের সহ্য করতে না পেরে অবশেষে পুলিশের দারস্ত হন। এবং ঋতময়কে গ্রেপ্তার করা হয়।

গত  জুন মাসে বর্ধমানের ঝাপানতলার বাসিন্দা ঋতময়ের  সঙ্গে উত্তর চব্বিশ পরগনার বারাসাত এলাকার এক মহিলার বিয়ে হয়। ওই মহিলার পরিবারের বক্তব্য, প্রথমে খবরের কাগজের বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে বিয়ের যোগাযোগ হয়। তাদের এই বিয়েতে মত ছিল না। কিন্তু ফেসবুকের মাধ্যমে তাদের মেয়ের সাথে নিয়মিত যোগাযোগ রেখে চলতো  ঋতময়। তদের  প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। এই পরিস্থিতিতে  তারা বিয়েতে রাজি হয়।  ঋতময়ের বর্তমান  স্ত্রীর অভিযোগ , বিয়ের পর থেকেই তার উপর শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন করতো ঋতময়।  এর আগে আরও দুটি বিয়ে হয়েছিল সেই বিষয়টিও গোপন রাখে। সম্প্রতি তাকে বেধড়ক মারধোর করে। এমনকি খুনেরও চেষ্টা করে। তার চিৎকারে প্রতিবেশীদের সাহায্যে প্রাণে বাঁচেন। সেই রাতেই তাকে বাড়ি থেকে বার করে দেওয়া হয় বলে অভিযোগ। এই অভিযোগের ভিত্তিতেই পুলিশ  ঋতময়কে গ্রেপ্তার করে। যদিও  ঋতময় এই অভিযোগ অস্বীকার করে জানিয়েছেন, সমস্ত অভিযোগ ভিত্তিহীন। তাকে চক্রান্ত করে ফাঁসানো হয়েছে।

***প্রতি মুহূর্তে ‘হাইলাইস বেঙ্গল’ এর নিউজ আপডেট পেতে আমাদের ফেসবুক পেজ Like  করুন।